সাকিবের সাজা কম হয়েছে যে ৬ কারণে

658

স্পোর্টস ডেস্কঃ
ম্যাচ পাতানোর প্রস্তাব পাওয়ার বিষয়টি আইসিসির দুর্নীতিবিরোধী ইউনিটের (আকসু) কাছে না জানানোর কারণে বাংলাদেশি পোস্টার বয় সাকিব আল হাসানকে সব ধরনের ক্রিকেট থেকে দুই বছরের নিষেধাজ্ঞা দিয়েছে আইসিসি। তিনটি অভিযোগ প্রমাণের ভিত্তিতে সাকিব এ শাস্তি দেয় আইসিসি। তবে, তদন্তে সহযোগিতা করায় ২ বছরের নিষেধাজ্ঞার মধ্যে ১ বছরের নিষেধাজ্ঞা স্থগিত করা হয়েছে এই টাইগার অলরাউন্ডারের।

প্রথম এক বছরের নিষেধাজ্ঞা চলাকালীন নতুন করে কোনো অপরাধ না করলে পরবর্তী এক বছরের শাস্তি পেতে হবে না বাংলাদেশের সাবেক টেস্ট ও টি-টুয়েন্টি অধিনায়কের। সেক্ষেত্রে আগামী ২০২০ সালের ২৯ অক্টোবর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরতে পারবেন তিনি। তবে এই সময়ের মধ্যে আবার কোনো অপরাধ করলে স্থগিত নিষেধাজ্ঞা কার্যকর হবে।

আকসুর তাদের প্রতিবেদনে সাকিবের সাজা কমার ৬টি কারণের কথা উল্লেখ করেছে। এগুলো হলো-

১. আকসুর তদন্ত সাকিবের স্বেচ্ছায় স্বীকারোক্তি ও সহযোগিতামূলক মনোভাব।
২. অভিযোগের নোটিশ পাওয়ার পর সাকিবের স্বতঃস্ফূর্ত স্বীকারোক্তি।
৩. আকসুর কাছে সাকিবের অনুশোচনা প্রকাশ ও অনুতপ্ত হওয়া।
৪. তার অতীত রেকর্ড ভালো।
৫. উক্ত অভিযোগগুলোর কারণে সংশ্লিষ্ট ম্যাচগুলোর বাণিজ্যিক মূল্য এবং জনস্বার্থ ব্যাহত না হওয়া।
৬. এসব কারণে উক্ত ম্যাচগুলোর ফলাফলে কোনো প্রভাব না পড়া।