এক ম্যাচে ৮৭০ রান!

1090

এ্খন রিপোর্ট।।

২০০৬ সালের অস্ট্রেলিয়া-দক্ষিণ আফ্রিকার ওই ম্যাচটা সবারই মনে থাকার কথা। ৪০০ পেরোনো যখন অকল্পনীয় ছিল, ওই ম্যাচেই দুই দল সেই পাহাড় টপকে গিয়েছিল। দুই দল মিলে ৮৭২ রান করেছিল, এখনো সেটি রেকর্ড হয়ে আছে। কাল নটিংহামশায়ার ও নর্দাম্পটনশায়ারের মধ্যে রয়্যাল লন্ডন ওয়ানডে কাপের ম্যাচ একটুর জন্য সে রেকর্ড ভাঙতে পারল না। দুই দল মিলে করেছে ৮৭০ রান, দুই রানের জন্য রেকর্ড হয়নি।

ট্রেন্টব্রিজে নটিংহামশায়ার শুরুতে ব্যাট করে ৪৪৫ রানের লক্ষ্য দিয়েছিল নর্দাম্পটনশায়ারকে। সেটা তাড়া করে নর্দাম্পটনশায়ার একদম কাছাকাছি চলেও গিয়েছিল, কিন্তু শেষ পর্যন্ত ৪২৫ রানেই থেমে যেতে হয়। নটিংহামশায়ারের ৪৪৫ রান সীমিত ওভারের ক্রিকেটের যেকোনো ম্যাচে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড। এক দিনের ম্যাচে সর্বোচ্চ ৪৯৬ রান করেছিল সারে, ২০০৭ সালে গ্লস্টারশায়ারের বিপক্ষে। আর নর্দাম্পটনশায়ারের ৪০০-র বেশি রান করেও হেরে যাওয়ার এটা চতুর্থ উদাহরণ। দুই দল মিলে এই ম্যাচে ছক্কা মেরেছে ৩৫টি। এক দিনের ম্যাচে এর বেশি ছয়ের রেকর্ড একটিই। ২০১৩ সালে বেঙ্গালুরুতে অস্ট্রেলিয়া-ভারতের ম্যাচে ৩৮টি ছক্কা হয়েছিল।

নটিংহামশায়ারের মাইকেল লাম্ব ও রিকি ওয়েসেলস মিলে যোগ করেছেন ৩৪২ রান। ইংল্যান্ডের মাটিতে যেকোনো উইকেটে এটাই সবচেয়ে বেশি রানের রেকর্ড। আগের রেকর্ডটি ছিল সৌরভ গাঙ্গুলী ও রাহুল দ্রাবিড়ের। ১৯৯৯ সালে টন্টনে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দুজন মিলে যোগ করেছিলেন ৩১৮ রান। আর সীমিত ওভারের ক্রিকেটে এর চেয়ে বেশি রানের রেকর্ড জুটি আছে দুটি।

তবে একটা রেকর্ড মাইকেল লাম্ব ঠিকই করে ফেলেছেন। তাঁর ১৮৪ কাউন্টিতে সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত রান।