একশ শিশু নিয়ে ডিসি বিপ্লবের ব্যতিক্রমী আয়োজন

বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন পালন

701

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৯৯তম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস উপলক্ষ্যে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের নিয়ে ব্যাতিক্রমী আয়োজন করেছেন ডিএমপি’র তেজগাঁও বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার বিপ্লব কুমার সরকার বিপিএম (বার), পিপিএম। ২৩ মার্চ শ্যামলীতে অবস্থিত তাঁর কার্যালয়ে টাঙ্গাইলের Friendship School (School for Underprivileged Children) এর ১০০ জন সুবিধাবঞ্চিত শিশুকে নিয়ে এ আয়োজন করেন ডিসি বিপ্লব। এ আয়োজনে ডিএমপির উর্ধতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

তিনটি বাসযোগে টাঙ্গাইল থেকে সুবিধাবঞ্চিত এই একশ শিশুকে ঢাকায় আনা হয়। শ্যামলীতে অবস্থিত উপ-পুলিশ কমিশনার কার্যালয়ে ১০ শিক্ষক-শিক্ষিকার তত্ত্বাবধানে শিশুদের নিয়ে আসা হয়। প্রত্যেক বাসে শিশুদের শারীরিক সুস্থতা নিশ্চিতকরনের জন্য ছিলেন চিকিৎসক। প্রত্যেক শিশুর জন্য বাস তিনটিতেই রাখা হয় পর্যাপ্ত তরল খাবার, বিশুদ্ধ পানি ও খাবার স্যালাইন।

FB_IMG_1553396556813শিশুরা তেজগাঁও বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার কার্যালয়ে পোঁছাতেই ডিসি বিপ্লব কুমার সরকার বিপিএম (বার), পিপিএম ফুল ও চকোলেট দিয়ে শিশুদেরকে তাঁর কার্যালয়ে অভ্যর্থনা জানান। এসময় তেজগাঁও বিভাগের বিভিন্ন পদমর্যাদার কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

পুলিশ হেডকোয়ার্টার্স ও ঢাকা মেট্রেপলিটন পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, সাংবাদিক ও বিশিষ্ট ব্যক্তিদের উপস্থিতিতে দুপুরের খাবারের পর শিশুদেরকে রঙীন জামা ও বিভিন্ন উপহার সামগ্রী উপহার দেওয়া হয়।

দুপুর আড়াইটায় শিশুদেরকে ধানমন্ডি বত্রিশ নম্বরে অবস্থিত বঙ্গবন্ধু যাদুঘরে নিয়ে যাওয়া হয়। তেজগাঁও বিভাগ ও বঙ্গবন্ধু যাদুঘরের কর্মকর্তাবৃন্দ সেখানে শিশুদেরকে উষ্ণ অভ্যর্থনা জানান।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পনের মাধ্যমে শ্রদ্ধা নিবেদনের পর শিশুদেরকে তিনটি গ্রুপে ভাগ করে বঙ্গবন্ধু যাদুঘর ঘুরে দেখানো হয়। এসময় তেজগাঁও বিভাগের উপ-পুলিশ কমিশনার বিপ্লব কুমার সরকার বিপিএম (বার), পিপিএম বঙ্গবন্ধুর সংগ্রামী জীবন, আদর্শ এবং স্বাধীন ও সার্বভৌম বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠায় বঙ্গবন্ধুর অবদান সম্পর্কে শিশুদেরকে ধারনা দেন।

FB_IMG_1553396570119

বঙ্গবন্ধু যাদুঘরে দুই ঘন্টা অবস্থানের পর শিশুদেরকে শ্যামলীতে অবস্থিত শিশুমেলা’য় নিয়ে যাওয়া হয়। তেজগাঁও বিভাগ ও শিশুমেলা’র কর্মকর্তাবৃন্দ

শিশুদেরকে সেখানে অভ্যর্থনা জানান। টাংগাইল থেকে আসা ১০০ সুবিধাবঞ্চিত শিশুর হৈ চৈ ও কলকাকলিতে মেতে উঠে শিশুমেলা প্রাঙ্গন। শিশুরা উপভোগ করে বিভিন্ন মনোমুগ্ধকর রাইড।

সারাদিন আনন্দে মেতে থাকার পরে সন্ধ্যায় শিশুদের বিদায় দেন ডিসি বিপ্লব। প্রত্যেক শিশুর জন্য বাসে দেওয়া হয় আইসক্রীম, রাতের খাবার, পর্যাপ্ত বিশুদ্ধ পানি ও খাবার স্যালাইন।

টাঙ্গাইলে ফিরতে শিশুদেরকে যাতে অনাকাংখিত ট্রাফিক জ্যামে পড়ে কষ্ট না পেতে হয় সেজন্য ডিএমপি’র ট্রাফিক (পশচিম) বিভাগ, ঢাকা জেলা ও টাঙ্গাইল জেলা পুলিশকে অনুরোধ জানানো হয়।